সোমবার, ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ | ১৩ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি
সোমবার, ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ | ১৩ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

রাজনীতির মাঠে বিএনপির সঙ্গে দাঁড়ানোর সাহস আ.লীগের নেই: আমীর খসরু

দীপ্ত নিউজ ডেস্ক
প্রকাশ: সর্বশেষ সম্পাদনা: 2 minutes read

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, ‘বরকতউল্লা বুলুকে, তাঁর স্ত্রীকে রাস্তায় চায়ের দোকানে হামলা করেছে। একান্ত পারিবারিক কর্মসূচিতে তাঁরা এসেছিলেন, সেখানে হামলা করেছে। বরকতউল্লা বুলুর সঙ্গে বেগমগঞ্জে সরাসরি রাজনৈতিক খেলা খেলতে চাইলে এখানে আসেন, চুরি করে রেস্টুরেন্টে কেন খেলতে গেলেন? রাস্তায় খেলা করেন, রাস্তায় আসেন। বেগমগঞ্জে আসেন। কত ধানে কত চাল আপনারা বুঝতে পারবেন।’

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকতউল্লা বুলুর ওপর হামলার প্রতিবাদে নোয়াখালীতে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী এসব কথা বলেন। আজ শুক্রবার বিকেলে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ স্টেডিয়ামে এ সমাবেশ হয়।

সমাবেশে আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী আরও বলেন, ‘আওয়ামী লীগের সঙ্গে আছে যারা, তারা বাংলাদেশকে লুটপাট করছে। তাদের সঙ্গে আছে টেন্ডারবাজরা, সন্ত্রাসীরা, দুর্নীতিবাজ ব্যবসায়ীরা, দুর্নীতিবাজ সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। তাই রাজনীতির মাঠে বিএনপির সঙ্গে মোকাবিলা করার সাহস আওয়ামী লীগের নেই। আজ আওয়ামী লীগের কোথাও কোনো সমর্থন নেই। রাজনীতির মাঠে বিএনপির সঙ্গে দাঁড়ানোর সাহস তাদের নেই। কাপুরুষের মতো ভীতসন্ত্রস্ত দেউলিয়া রাজনৈতিক দলে পরিণত হয়েছে আওয়ামী লীগ। তাদের কোনো জনসমর্থন নেই। তারা সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে জনগণের কাছ থেকে।’

আমীর খসরু বলেন, আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা কেড়ে নিয়েছে। তারা বাক্‌স্বাধীনতা কেড়ে নিয়েছে। আইনের শাসন কেড়ে নিয়েছে। গণমাধ্যমের স্বাধীনতা কেড়ে নিয়েছে। বাংলাদেশের মানুষের জীবনের নিরাপত্তা কেড়ে নিয়েছে। আওয়ামী লীগ এখন যে রাজনীতিতে নেমেছে, সেটা হচ্ছে রাতের অন্ধকারে বিএনপির মোমবাতি কর্মসূচিতে হামলা, বিএনপির নেতাদের বাড়িতে তাদের অনুপস্থিতিতে হামলা করা, ভাঙচুর করা।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য আরও বলেন, ‘এই সরকারের পতনের পর সবার মতামতের ভিত্তিতে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হবে। খালি বিএনপি নয়, সবার মতামতের ভিত্তিতে নির্বাচনী আইন প্রণয়ন করা হবে। আগামী দিনে বাংলাদেশের মানুষ তাঁদের সংসদে তাঁদের প্রতিনিধি নির্বাচন করবেন। নির্বাচিত সরকার গঠিত হবে, যাদের বাংলাদেশের মানুষের কাছে জবাবদিহি করতে হবে।’

উপজেলা বিএনপির সভাপতি কামাক্ষ্যা চন্দ্র দাশের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহাজাহান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবুল খায়ের ভূঁইয়া ও জয়নুল আবেদিন ফারুক, বিএনপির চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান, জেলা বিএনপির সভাপতি এ জেড এম গোলাম হায়দার, সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান, জেলা যুবদলের সভাপতি মঞ্জুরুল আজিম প্রমুখ।

আরও পড়ুন

সম্পাদক: এস এম আকাশ

অনুসরণ করুন

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

স্বত্ব © ২০২৩ কাজী মিডিয়া লিমিটেড

Designed and Developed by Nusratech Pte Ltd.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More